৺রী শ্রীশ্রী ভবানী মাতাহি কেবলম্

শক্তিপীঠ ভবানীপুর – হিন্দু সম্প্রদায়ের আন্তর্জাতিক তীর্থস্থান

প্রদীপ
জয় মা কালী।। জয় বাবা শিব।। ওঁ সর্বমঙ্গল মঙ্গল্য়ে শিবে সর্বার্থ সাধিকে শরণ্য়ে ত্র্য়ম্বকে গৌরী নারায়ণী নমোহস্তুতে। ওঁ সৃষ্টি-স্থিতি-বিনাশানাং শক্তিভূতে সনাতনী। গুণাশ্রয়ে গুণময়ে নারায়ণী নমোহস্তুতে। জয়ন্তী মঙ্গলাকালী ভদ্রাকালী কপালীনি দুর্গাশিবা ক্ষমাধাত্রী স্বহাস্বধা নমোহস্তুতে। ওঁ শরণাগত দীনার্ত পরিত্রাণ পরায়ণে সর্বস্য়ার্তিহরে দেবী নারায়ণী নমোহস্তুতে।। ওঁ করালবদনাং ঘোরাং মুক্তকেশীং চতুর্ভুজাম্। কালিকাং দক্ষিণাং দিব্য়াং মুন্ডমালা বিভূষিতাম্। সদ্য়শ্ছিন্নশিরঃখড়্গ বামাধোর্দ্ধোকরাম্বুজাম্। অভয়ং বরদঞ্চৈব দক্ষিণাধোর্দ্ধোপাণিকাম্। মহামেঘপ্রভাং শ্য়ামাং তথা চৈব দিগম্বরীম্। কন্ঠাবসক্তমুন্ডালী গলদ্রুধিরচর্চ্চিতাম। কর্ণাবতংসতানীত শবযুগ্মভয়ানকাম্। ঘোরদংষ্ট্রাং করালাস্য়াং পীনোন্নতপয়োধরাম্। শবানাং করসঙ্ঘাতৈঃ কৃতকাঞ্চীং হসম্মুখীম্। সৃক্কদ্বয়গলদ্রক্তধারাবিস্ফুরিতাম্। ঘোররাবাং মহারৌদ্রীং শ্মশানালয়বাসিনীম্। বালার্কমন্ডলাকার লোচন ত্রিতয়ান্বিতাম্। দন্তুরাং দক্ষিণব্য়াপিমুক্তালম্বিকচোর্চ্চয়াম্। শবরুপ-মহাদেব হৃদয়োপরিসংস্থিতাম্। শিবাভির্ঘোররাবাভিশ্চতুর্দিক্ষু সমন্বিতাম্। মহাকালেন চ সমং বিপরীতরতাতুরাম্। সুখপ্রসন্নবদনাং স্মেরাননসরোরুহাম্। এবং সঞ্চিন্তয়েৎ কালীং ধর্মকামার্থসিদ্ধিদাম্।। ওঁ নমস্তভ্য়ঃ বিরুপাক্ষ নমস্তে দিব্য়চক্ষুসে নমঃ। পিণাকহস্তায় বজ্রহস্তায় বৈ নমঃ। নমত্রিশূলহস্তায় দন্ড পাশাংসিপাণয়ে। নমঃ স্ত্রৈলোক্য়নাথায় ভূতানাং পতয়ে নমঃ। ওঁ বানেশ্বরায় নরকর্ণবতারনায়, জ্ঞানপ্রদায় করুণাময়সাগরায়। কর্পূরকুন্ডবলেন্দুজটাধরায়, দারিদ্রদুঃখদহনায় নমঃ শিবায়। ওঁ নমঃ শিবায় শান্তায় কারণত্রয়হেতবে। নিবেদয়ানি চাত্মানং ত্বং গতি পরমেশ্বরঃ।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে থাকিয়া বিষ্ণুমায়া বলিয়া কথিত হন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে চেতনা বলিয়া কথিতা, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে বুদ্ধিরূপে অবস্থান করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল প্রাণীর মধ্য়ে নিদ্রারূপে অবস্থান করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সর্ব্বজীবের মধ্য়ে ক্ষুধারূপে অবস্থিতা, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সর্ব্বজীবে ছায়ারূপে বর্তমান রহিয়াছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সর্ব্বজীবে শক্তিরূপে বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে তৃষ্ণারূপে বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে ক্ষমারূপে বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে জাতিরূপে অবস্থিতা, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে লজ্জারূপে বিরাজ করিতেছেন, সেই দেবীকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সকল জীবের মধ্য়ে শান্তিরূপে অবস্থিতা, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সমস্ত জীবের মধ্য়ে শ্রদ্ধারূপে বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সর্ব্বজীবে কান্তিরূপে বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সমস্ত জীবের মধ্য়ে সম্পদরূপে বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সমস্ত জীবের জীবিকারূপে অবস্থিতা, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সর্ব্বজীবে স্মরণশক্তিরূপিণী, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সমস্ত জীবের হৃদয়ে দয়ারূপিণী, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সর্ব্বজীবের মধ্য়ে তুষ্টিরূপে বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সমস্ত জীবের জননীরূপা, তাঁহাকে বার বার নমস্কার।। যে দেবী সমস্ত জীবের হৃদয়ে ভ্রান্তিস্বরূপিণী, সেই দেবীকে বার বার নমস্কার।।

ভক্তরা বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার (ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের/বিশ্বরোডের) মির্জাপুর রানীরহাট মোড় হতে দক্ষিণ-পশ্চিম দিকের রাস্তা বরাবর গিয়ে আম্বইল বটতলায় মোড় ঘুরে দক্ষিণ দিকের রাস্তা বরাবর গিয়ে ভবানীপুরে পৌঁছাতে পারেন। অথবা ভক্তরা বিশ্বরোড সংলগ্ন ঘোগা বটতলা বাস-স্টপেজ মোড় হতে পশ্চিম দিক বরাবর যাওয়া রাস্তা দিয়ে গিয়ে বিভিন্ন মোড় ঘুরে ভবানীপুরে পৌঁছাতে পারেন।

গুগল ম্যাপে ভবানীপুরে পৌঁছার মানচিত্র:

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে সংশ্লিষ্ট মানচিত্র [http://www.lged.gov.bd/UploadedDocument/Map/RAJSHAHI/bogra/sherpur/sherpur.jpg]:


বগুড়ার মানচিত্র নাটোরের মানচিত্র সিরাজগন্জের মানচিত্র বাংলাদেশের মানচিত্র

ওয়েবসাইটস্বত্ব - ভবানীপুর মন্দির সংস্কার, উন্নয়ন ও পরিচালনা কমিটি ১৪২৫